হাই ভোল্টেজ ম্যাচে লক্ষ্ণৌর শেষ হাসি

Please Share

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৫তম আসরের ১৫তম ম্যাচে দিল্লী মুখোমুখি হয়েছিল নতুন দল লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসের। হাই ভোল্টেজ এই ম্যাচে দিল্লীকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে লোকেশ রাহুলের দল।

এর আগে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৩ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ১৪৯ রান করেছে মুস্তাফিজুর রহমানদের দিল্লি ক্যাপিটালস। অধিনায়ক রিশভ পান্ট ৩৬ বলে ৩৯ ও সরফরাজ খান ২৮ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।

লক্ষ্ণৌয়ের পক্ষে রবি বিষ্ণই শিকার করেন জোড়া উইকেট।

 

১৫০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামলে প্রথমেই মুস্তাফিজের মুখোমুখি হয় লক্ষ্ণৌ।  সেই ওভারে ৫ রান খরচ করেন মুস্তাফিজ। ষষ্ঠ ওভারে আবারও আক্রমণে আসেন কাটার মাস্টার, সেই ওভারে ৩ রান খরচ করেন।

অথচ অ্যানরিখ নরকিয়ার, কুলদীপ যাদবরা রান বিলিয়েছেন দেদারসে। অ্যানরিখ নরকিয়া খরুচে বোলিং করলেও ১৬তম ওভারে আবারও তার ওপর ভরসা করেন পান্ট। সেই ওভারে ইনিংসে নিজের দ্বিতীয় বিমার ছুঁড়ে বোলিং থেকে ছিটকে পড়েন। সেই ওভারের বাকি চার বলে কুলদীপ যাদব নিজের দ্বিতীয় উইকেটের দেখা পেলেও হজম করেন দুটি চার।

এতে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে দিল্লী। ১৭তম ওভারে নিজের তৃতীয় ওভার বল করতে আসেন মুস্তাফিজ। যথারীতি নিয়ন্ত্রিত বোলিং দেখিয়ে সেই ওভারে মাত্র ৪ রান নেওয়ার সুযোগ দিয়েছেন লক্ষ্ণৌকে। আবারও বল হাতে নেন ১৯তম ওভারে, তখন ১২ বলে লক্ষ্ণৌয়ের প্রয়োজন ১৯ রান।

সেই ওভারের তৃতীয় বলে মুস্তাফিজ হজম করেন ম্যাচে নিজের প্রথম ও একমাত্র বাউন্ডারি। ক্রুনালের সেই ছক্কায় ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে চলে আসে লক্ষ্ণৌয়ের। সেই ওভারে ১৪ রান খরচ করলে ৪ ওভারে মোট ২৬ রান দাঁড়ায় মুস্তাফিজের খরচের খাতা।
১৯.৪ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্ণৌ পৌঁছে যায় জয়ের বন্দরে।

টস : লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস
দিল্লী ক্যাপিটালস : ১৪৩/৩ (২০ ওভার)
পৃথ্বী ৬১, পান্ট ৩৯*, সরফরাজ ৩৬*
বিষ্ণই ২২/২, গৌতম ২৩/১

লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস : ১৫৫/৪ (১৯.৪ ওভার)
ডি কক ৮০, রাহুল ২৪
কুলদীপ ৩১/২, ললিত ২১/১, শার্দূল ২৯/১, মুস্তাফিজ ২৬/০

ফল : লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস ৬ উইকেটে জয়ী।