গাফ্‌ফার চৌধুরীর প্রয়াণে কাদতে দেখা গেলো পরীমণিকে

Please Share

বিশিষ্ট সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত লেখক আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন ঢাকাই সিনেমার চিত্রনায়িকা পরীমণি। এই নায়িকার দুঃসময়ে দূর লন্ডন থেকে অসহায় পরীর পাশে সারাক্ষণ ছিলেন এই কিংবদন্তি লেখক।  মৃত্যুর খবর পেয়ে স্মৃতিকাতর পরীমণি বলেন, ‘অনেকক্ষণ থেকে ভাবছিলাম খবরটি শোনার পর। অনেক কিছু চোখে ভেসে উঠছিল বারবার।

আপনার চেহারা, কানে বাজছিল স্নেহমাখা কথা, আপনার লেখা আমাকে অজস্র টেক্সট। ’

আরও জানান, ‘গত বছরের ৫ আগস্ট থেকে আপনি আমাকে খুঁজেছেন। আমার খারাপ সময়ে এমন কোনোদিন নেই ফোন করে খবর নেননি। টানা ৪ মাস আপনি প্রায় প্রতিদিন খোঁজ নিয়েছেন আমার হোয়াটস অ্যাপ-এ। আমাকে নিয়ে সুন্দর একটা লেখাও লিখেছিলেন আনন্দবাজার পত্রিকায়। আপনি আমাদের সাহস দিতেন সবসময়। ’

শুধু আনন্দবাজারে নয়, পরীমণির আইনি জটিলতার সময় আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী লিখেছেন তাকে নিয়ে কবিতাও। দীর্ঘ সেই কবিতা ছাপা হয়েছে দেশের অন্যতম জাতীয় পত্রিকায়। ‘পরীমণি, তুমি আমার জন্য কেঁদো না’ শিরোনামের সেই কবিতায় কবি পরীমণিকে তুলনা করেছেন নিজের মায়ের সঙ্গে। লিখেছেন, ‘তোমার চোখের কান্নায় দেখেছি আমার মায়ের চোখের জল। ’

সেই কবিতা পড়ে নতুন করে কাঁদছেন পরী। বললেন, ‘সত্যি কান্না পাচ্ছে। চোখ ভেসে উঠলো বারবার। কথা ছিল, আপনি আসবেন, দেখা হবে। অসুস্থতার ভেতরেও কল করেছিলেন আপনি। আহা! কোনোদিন আপনাকে ভুলবো না। আপনি থাকবেন আমার মনের ভেতর অনন্তকাল। স্যালুট টু ইউ। ’

আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী স্থানীয় সময় গত বুধবার রাতে যুক্তরাজ্যের লন্ডনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।