সৌরজগতের বাইরে খোঁজ মিলল ৫০০০ বিশ্বের

Please Share

আকাশের দিকে তাকালেই মাথায় আসে সেই প্রশ্ন, এই বিশাল মহাবিশ্বে আমরা কি একা? বহু প্রাচীন সময়ে মহাকাশ চর্চা শুরু করেছিল মানুষ। তারপর, সূর্যের চারপাশে ঘোরা গ্রহগুলি আবিষ্কার হয়েছে। প্রতিদিন আরও কত নতুন নতুন তথ্য জানা চলছে, সেইসব মহাজাগতিক বস্তুর সম্পর্কে। এবার, সৌরজগতের সেই গণ্ডি ছাড়িয়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল মার্কিন মহাকাশ চর্চা কেন্দ্র নাসা (NASA)। তারা, জানিয়েছে, দূর মহাকাশে অন্তত ৫,০০০ টিরও বেশি পৃথিবী রয়েছে আমাদের অপেক্ষায়।

৫০০০ এক্সোপ্ল্যানেট

সম্প্রতি নাসা, আরও ৬৫ টি নতুন গ্রহ আবিষ্কার করেছে। ফলে, আমাদের সৌরজগতের বাইরের অন্যান্য নক্ষত্রের চারপাশে আবর্তিত হওয়া ৫০০০ টিরও বেশি পৃথিবী-সম গ্রহের উপস্থিতি নিশ্চিত হয়েছে। এই গ্রহগুলির প্রত্যেকটির বুকে জল, জীবাণু ও গ্যাসের উপস্থিতি, এমনকি ভিনগ্রহী প্রাণীও থাকতে পারে। এগুলিকে বলা হয় এক্সোপ্ল্যানেট (Exoplanets)।

একাধিক সনাক্তকরণ পদ্ধতি বা বিশ্লেষণাত্মক কৌশল

নাসা জানিয়েছে, একাধিক সনাক্তকরণ পদ্ধতি বা বিশ্লেষণাত্মক কৌশল ব্যবহার করে, তারপরই এই গ্রহগুলির বিষয়ে নিশ্চিত সিদ্ধান্তে আসা হয়েছে। প্রত্যেকটি এক্সোপ্ল্যানেটই একেকটি নতুন জগৎ, একেবারে নতুন ধরণের গ্রহ। কয়েকটি আকারে ধরণে, একেবারে আমাদের পৃথিবীর মতো হলেও, কয়েকটি অনেকটাই অন্যরকম।

বিচিত্র সব জগৎ

এখন পর্যন্ত আবিষ্কৃত ৫০০০টি এক্সোপ্ল্যানেটের মধ্যে রয়েছে পৃথিবীর মতো ছোট আকারের পাথুরে গ্রহ। রয়েছে, বৃহস্পতির থেকেও আকারে বহুগুণে বড় গ্যাসে ভরা গ্রহ। আবার রয়েছে, ‘সুপার-আর্থ’ অর্থাৎ, আমাদের গ্রহের থেকে বড় আকারের পাথুরে জগৎ। রয়েছে ‘মিনি-নেপচুন’ও। অর্থাৎ, যেগুলি প্রকৃতিতে আমাদের সৌরজগতের নেপচুনের মতো, তবে আকারে ছোট।

আছে একগুঁয়ে গ্রহও

গত তিন দশক ধরে আবিষ্কৃত এই গ্রহগুলি মধ্যে কয়েকটি রয়েছে, যেগুলি একসঙ্গে জোড়া নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করে। আবার, এমন গ্রহও রয়েছে, যেগুলির নক্ষত্র ইতিমধ্যেই মৃত। তাও, তার ধ্বংসাবশেষের চারপাশে প্রদক্ষিণ করে চলেছে সেই একগুঁয়ে গ্রহ।

৫০০০ কোনও সংখ্য়া নয়

তবে, ৫০০০টি গ্রহ সবে মাত্র শুরু। কারণ, এগুলি প্রত্যেকটিই মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি বা আকাশগঙ্গা ছায়াপথের অংশ। সম্প্রতি জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপে তোলা একটি চিত্রেই হাজার হাজার ছায়াপথ ধরা পড়েছে। কাজেই, শত শত কোটি গ্রহ এখনও অনাবিষ্কৃত থেকে গিয়েছে। তবে, নাসার এক্সোপ্ল্যানেট আর্কাইভের প্রধান, জেসি ক্রিশ্চিয়ানসেন বলেছেন, ৫০০০ কোনও সংখ্য়া নয়। প্রত্যেকটি গ্রহ নিয়েই আমরা উত্তেজিত। কারণ সেগুলি সম্পর্কে আমরা প্রায় কিছুই জানি না।